লজিক গেটসমূহ

আমাদের আজকের বিষয়বস্তুটি ইলেক্ট্রনিক্সে খুব গুরুত্বপূর্ণ, মজাদার এবং সহজ একটি বিষয়। আজকে আমরা জানার চেষ্টা করবো লজিক গেট সম্পর্কে।

লজিক গেট মূলত কি?

লজিক গেট হচ্ছে এক ধরণের ইলেকট্রনিক সার্কিট। ডিজিটাল ইলেকট্রনিক সার্কিটে যখন বুলিয়ান অ্যালজেবরার ব্যবহারিক প্রয়োগ করা হয় তখন তাকে বলা হয় লজিক গেট। যেখানে এক বা একধিক ইনপুট দেয়ার পর শুধুমাত্র একটি আউটপুট পাওয়া যায়।

এখন আমাদের মনে প্রশ্ন আসতে পারে বুলিয়ান অ্যালজেবরা কি?

আমরা জানি কম্পিউটার বা ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস শুধু ০ এবং ১ বোঝে এবং এই ০ এবং ১ এর মাধ্যমেই এর সকল যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করে। ১ দ্বারা বিদ্যুতের উপস্থিতি এবং ০ দ্বারা বিদ্যুতের আনুপস্থিতি বুঝায়। ১৮৫৪ সালে ইংল্যান্ডের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রখ্যাত গণিতবিদ জর্জ বুলি গনিত এবং যুক্তির মধ্যে একটি সুস্পষ্ট সম্পর্কের ব্যাখ্যা দেন। যা প্রমানের জন্য তিনি বিভিন্ন গেট ব্যবহার করেছিলেন। তিনি তার “ ম্যথম্যটিকস অব লজিক” নামে একটি গ্রন্থে গনিত এবং যুক্তির মধ্যে সম্পর্ক স্থাপন করে এক ধরণের অ্যালজেবরা উপস্থাপন করেন। যা সাধারন অ্যালজেবরা থেকে অনেক বেশী সহজ। তার নামানুসারে এই অ্যালজেবরাকে বলা হয় বুলিয়ান অ্যালজেবরা।

এবার আমরা ফিরে যাই লজিক গেটে। লজিক গেট মূলত দুই ধরণের।

১।মৌলিক গেট এবং

২। যৌগিক গেট।

১। মৌলিক গেটঃ মৌলিক গেট হল এমন কিছু গেট যাকে বিশ্লেষণ করলে অন্য কোন গেট পাওয়া যায় না এবং যে গেটসমূহ একক হিসেবে কাজ করে তাকে মৌলিক গেট বলে। মৌলিক গেটের সাহায্যে অন্য যৌগিক গেটগুলো তৈরি করা হয়ে থাকে।

তিন ধরণের মৌলিক গেট রয়েছে।

ক। এন্ড গেট ( লজিক্যল গুনের জন্য )

খ। অর গেট ( লজিক্যল যোগের জন্য)

গ। নট গেট ( লজিক্যল পূরকের জন্য)

ক। এন্ড গেটঃ এই গেটে ইনপুট দুই বা তার অধিক থাকতে পারে কিন্তু আউটপুট সবসময়য় একটি হবে। দুটি ইনপুট যদি A এবং B হয় এবং এদের আউটপুট যদি Y হয় তবে A এবং B উভয়ের মান যখন ১ হবে কেবল তখনি আমরা আউটপুট Y এর মান ১ পাবো। অন্য সব ক্ষেত্রে Y এর মান ০ পাবো। কারন এন্ড গেট কাজ করে AB=Y এই সুত্র মেনে। এই ক্ষেত্রে A অথবা B এর যে কোন একটির মান শূন্য হলে Y এর মান শূন্য হবে। চিত্রে তা দেখানো হল।

খ। অর গেটঃ অর গেটের ক্ষেত্রেও ইনপুট দুই বা তার অধিক থাকলেও আউটপুট একটি থাকবে। দুটি ইনপুট যদি A এবং B হয় এবং এদের আউটপুট যদি Y হয় তবে A এবং B উভয়ের মান যখন ০ হবে কেবল তখনি আমরা আউটপুট Y এর মান ০ পাবো। অন্য সব ক্ষেত্রে Y এর মান ১ হবে। কারন অর গেট কাজ করে A+B=Y এই সূত্র মেনে। এই ক্ষেত্রে A অথবা B এর যে কোন একটির মান ১ হলে Y এর মান ১ হবে। চিত্রে তা দেখানো হল।

গ। নট গেটঃ নট গেটের ক্ষেত্রে একটি ইনপুট এবং একটি আউটপুট থাকবে। একটি ইনপুট যদি x হয় এবং এর আউটপুট যদি z হয় তবে x এর মান যখন ০ হবে তখন আউটপুট z এর মান ১ হবে। অর্থাৎ এর যেকোনো একটি মানের জন্য আমরা এর আউটপুট ইনপুটের মানের ইনভার্টেড মান পাবো। অর্থাৎ আউটপুট হবে ইনপুটের ইনভার্টেড মানের সমান। কারন নট গেট কাজ করে  x̅=z এই সুত্র মেনে। চিত্রে তা দেখানো হল।

যৌগিক গেট গুলো এই মৌলিক গেট দ্বারাই গঠিত। পরবর্তী লেখায় আমরা যৌগিক গেটগুলো সম্পর্কে জানবো।

 

Facebook Comments

লেখক সম্পর্কে কিছু তথ্য

রাজমনি পাল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে (অনার্স) অধ্যায়নরত একজন শিক্ষার্থী।তিনি কিউরিয়াস সেভেনের জন্য নিয়মিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক আটিকেল লিখেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

9 + 1 =